মৌলবাদ জঙ্গিবাদ উগ্রসাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে জাতির বিবেককে জাগ্রত করার মহান ব্যক্তিত্ব প্রগতিশীল লেখক, কবি ও কথা সাহিত্যিক অধ্যাপক হুমায়ুন আজাদ স্মরণে আলোর মিছিল করেছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ।

২০০৪ সালের এই দিনে মৌলবাদী অপশক্তির নৃশংস হত্যাচেষ্টায় দেশের কিংবদন্তী প্রগতিশীল লেখক, কবি, কথা সাহিত্যিক অধ্যাপক হুমায়ন আজাদের স্মরণে রোববার (২৭ ফেব্রুয়ারি) রাত ১১ টায় ওই মৌলবাদ বিরোধী আলোর মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি আল-নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যের নেতৃত্বে টিএসসি সংলগ্ন স্বোপার্জিত স্বাধীনতার পাদদেশ থেকে হাতে মোমবাতি নিয়ে মৌলবাদ বিরোধী আলোর মিছিল বের করে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা।

পরবর্তীতে তাঁরা শ্রী রমনা কালী মন্দির ও শ্রীমা আনন্দময়ী আশ্রম সংলগ্ন স্থান, যেখানে হুমায়ুন আজাদ’কে ছুরিকাঘাত করা হয় ওই স্থানে গিয়ে প্রদীপ প্রজ্বলন করে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস ও সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন সহ কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হলের নেতৃবৃন্দ এসময় উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, ২০০৪ সালে ২৭ ফেব্রুয়ারি বাংলা একাডেমির বইমেলা থেকে বাসায় ফেরার পথে একদল সন্ত্রাসী হুমায়ুন আজাদকে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে গুরুতরভাবে আহত করে। হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করে হুমায়ুন আজাদ সুস্থ হয়ে ওঠেন। ওই বছরের ৭ আগস্ট একটি গবেষণা বৃত্তি নিয়ে তিনি জার্মানি যান। এর পাঁচ দিন পর ১২ আগস্ট মিউনিখের নিজ ফ্ল্যাটে নিজ কক্ষে তাঁকে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়।