২০২১-২০২২ অর্থবছরে যুগান্তকারী, সময়োপযোগী ও জনকল্যাণমুখী বাজেট প্রনয়ণের জন্য বাংলাদেশ ছাত্রলীগ পরিবারের পক্ষ থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন ও ধন্যবাদ জানিয়ে আনন্দ মিছিল ও সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করেছে ছাত্রলীগ।

বৃহস্পতিবার (৩ জুন) বিকাল ৫ টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিন থেকে ২০২১-২০২২ অর্থবছরের বাজেটকে স্বাগত জানিয়ে ছাত্রলীগের সভাপতি আল-নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যের নেতৃত্বে সংগঠনের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা আনন্দ মিছিল বের করেন। আনন্দ মিছিলটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিন থেকে শুরু হয়ে ভিসি চত্বর, টিএসসি হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে এসে শেষ হয়। মিছিল পরবর্তী সংক্ষিপ্ত সমাবেশে ছাত্রলীগের শীর্ষ নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।

পরে সংক্ষিপ্ত সভায় ছাত্রলীগের সভাপতি আল-নাহিয়ান খান জয় বলেন, শিক্ষা, কৃষি, জনবান্ধব ও উন্নয়নমুখী এ বাজেট দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় বাজেট। জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নয়নমুখী ও জনমানুষের কল্যাণের বাজেট আমাদের দেশকে উন্নতির শিখরে নিয়ে যাবে। বাজেট বাস্তবায়নে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সবসময় সরকারের পাশে থাকবে। আমরা বিশ্বাস করি দেশ ও জনস্বার্থের এই বাজেট বাস্তবায়নে সরকার সফল হবে।

তিনি আরও বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জনকল্যাণমুখী এ বাজেট বাংলাদেশকে উন্নত দেশে পরিণত করবে। এ বাজেটে সাধারণ মানুষ খুশি হয়েছে। কল্যাণকর বাজেট প্রণয়ন করায় আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

এ সময় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য বলেন, বাংলাদেশকে সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে নিতে ২০২১-২২ অর্থ বছরের বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে। এই বাজেট শিক্ষার্থীবান্ধব বাজেট।

বাজেটকে স্বাগত জানিয়ে তিনি আরও বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জানেন কি করে বড় বাজেট প্রণয়ন করতে হয় এবং তা কি করে বাস্তবায়ন করতে হয়। তাঁর সুযোগ্য নেতৃত্বেই বাংলাদেশ এখন বিশ্বের রোল মডেল। তাই বিশ্ববাসী বাংলাদেশকে সমীহ ও সম্মানের চোখে দেখে এখন। দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে এই বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে। যেখানে সাধারণ মানুষের জীবন ও জীবিকা, স্বাস্থ্য সুরক্ষা, কর্মসংস্থান, কৃষি খাত, খাদ্য উৎপাদন ও ব্যবস্থাপনার উপর গুরুত্বারোপ করা হয়েছে। জনকল্যাণমুখী মেগা বাজেট প্রণয়ন করায় মাননীয় জননেত্রী শেখ হাসিনাকে আমরা ছাত্র সমাজের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানাই।

এ সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন, ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের সভাপতি ইব্রাহিম হোসেন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদী হাসান সহ সংগঠনের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ, বিশ্ববিদ্যালয়, মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ ও বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।