রাতের আঁধারে সিলেটের বালাগঞ্জে সংকটে পড়া এক  কৃষকের বোরো ধান কেটে দিয়ে অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন দেওয়ান বাজার ইউনিয়ন ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দরা।

রবিবার (২ মে) ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি মাসুদুর রহমানের নেতৃত্বে উপজেলার দেওয়ান বাজার ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের কুবেরাইল এলাকার ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা সন্ধা ৭:৩০ থেকে শুরু করে রাত ১২টা পর্যন্ত ধান কাটেন তারা।

ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি মাসুদুর রহমান বলেন, ‘বালাগঞ্জ উপজেলার ৩নং দেওয়ান বাজার ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের সংকটে থাকা এক কৃষক আমাকে কল দিয়ে উনার জমির পাকা ধান ঝরে যাচ্ছে, ধান কাঠানোর লোক পাচ্ছেন না সহ নানান সমস্যার কথা বলেন, পরে বিষয়টি বালাগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রুবেল আহমদকে অবগত করি এবং তার নির্দেশনায় আমরা ৩ নং দেওয়ান বাজার ইউনিয়ন ছাত্রলীগের একটি টিম কৃষক ভাইয়ের ধান কেটে দিয়েছি।’

তিনি বলেন, ‘রোজা রেখে দিনের বেলা ধান কাটা কষ্টকর হয়ে যায় সবার জন্য এবং আকাশের অবস্থা ভালো না থাকায় আমরা রাতের আঁধারেই উনার ধান কেটে দেই।’

তিনি আরও বলেন, ‘দেশ জুড়ে ধান কাটা শ্রমিকের মজুরি তুলনামূলক ভাবে বেশি হওয়ায় ও দেশে করোনা ভাইরাসের কারণে অনেক গরীব, অসহায় ও হতদরিদ্র কৃষক শ্রমিকের অভাবে ধান কাটতে পারছেন না। তাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে এবং বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের পরামর্শ মোতাবেক আমরা দরিদ্র কৃষকদের ধান কেটে দেওয়ার কর্মসূচি হাতে নিয়েছি। দেশ ও জাতির উন্নয়নে আমরা এরকম অসহায় বর্গাচাষী তথা দরিদ্র কৃষকদের পাশে আছি এবং ভবিষ্যতেও তাদের পাশে থাকবো ইনশাআল্লাহ।’

ভুক্তভোগী কৃষক বলেন, ‘এই বোরো মৌসুমে অনেক ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ ও কর্মীরা সাধারণ মানুষের ধান কেটে দিচ্ছেন। আমি সমস্যায় পড়ে দেওয়ান বাজার ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি মাসুদুর রহমানের কাছে সমস্যার কথা বলার পর তিনি তার নেতাকর্মী নিয়ে এসে আমার জমির ধান কেটে দিয়ে যান। এজন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ছাত্রলীগের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।’