কুড়িগ্রাম জেলার নাগেশ্বরী উপজেলায় শ্রমিক ও আর্থিক সংকটে পড়া এক দরিদ্র কৃষকের বোরো ধান কেটে দিয়েছে ছাত্রলীগ। উপজেলার হাসনাবাদ ইউনিয়নের দক্ষিণ ব্যাপারী হাট এলাকার এক দরিদ্র কৃষকের বোরো ধান কেটে নিরাপদ স্থানে পৌঁছে দিয়ে অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন উপজেলা ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দরা।

বৃহস্পতিবার (২৯ এপ্রিল) নাগেশ্বরী উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা আরাফাত হোসাইন রাসু নেতৃত্বে উপজেলার ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা সকাল ১০টা থেকে ধান কাটা শুরু করে দুপুর ১টা ৩০ ঘটিকা পর্যন্ত ২০ শতক জমির ধান কাটেন তারা।

স্বেচ্ছাশ্রমে এ ধান কাটা কর্মসূচিতে অংশ গ্রহনকারীদের মধ্যে-হাসনাবাদ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সুলতান মাহমুদ বাদশা, বাইজিদ, রানা, সবুজ, সোহাগ, রমজান, মলয়, রঞ্জু, রিমন, রিদয়, আশিক আরো অনেকে।

দরিদ্র কৃষক জানান, ‘ছাত্ররা আমার ধান কেটে দেওয়ায় আমি খুব উপকৃত হলাম। তারা আমার ধান কেটে না দিলে টাকার অভাবে সঠিক সময়ে ধান কাটা সম্ভব হতো না। ফলে হয় তোবা অনেক ধান নষ্ট হতো।’

আরাফাত হোসাইন রাসু বলেন, ‘দেশ জুড়ে ধান কাটা শ্রমিকের মজুরি তুলনামূলক ভাবে বেশি হওয়ায় ও দেশে করোনা ভাইরাসের কারণে অনেক গরীব, অসহায় ও হতদরিদ্র কৃষক শ্রমিকের অভাবে ধান কাটতে পারছেন না। তাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে এবং বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের নেতৃবৃন্দের পরামর্শ মোতাবেক আমরা দরিদ্র কৃষকদের ধান কেটে দেওয়ার কর্মসূচি হাতে নিয়েছি।’

তিনি আরো বলেন, ‘দেশ ও জাতির উন্নয়নে আমরা এরকম অসহায় বর্গাচাষী তথা দরিদ্র কৃষকদের পাশে আছি এবং ভবিষ্যতেও তাদের পাশে থাকবো ইনশাআল্লাহ।’