করোনা মহামারিতে শ্রমিক সংকট ক্ষেতের পাকা ধান কাটতে না পেরে হতাশ হয়ে পড়েছিলেন ঝিকরগাছা উপজেলা লক্ষীপুর গ্রামের এক কৃষক। কোন উপায় না পেয়ে ধান কাটার জন্য খুঁজতে থাকেন ছাত্রলীগ নেতাদের।

খবর পেয়েই ছুটে যান ঝিকরগাছা উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা মোঃ তাজবিউল হাসান অপূর্ব, এহসানুল হক এলান, মীর ওয়াহিদ রেহমান, তানজিউল হাসান অর্পণ। কেটে দিলেন ২ বিঘা জমির ধান।

শুক্রবার (৩০ এপ্রিল) উপজেলার ৬ নং ঝিকরগাছা ইউনিয়নের লক্ষীপুর গ্রামের সিরাজুল রহমানের ধান কেটে মাড়াই করে দেয় ছাত্রলীগ কর্মীরা।

কৃষক সিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘আমার জমির ২ বিঘা ধান পেকে যায়। নিজের শারীরিক অবস্থাও ভাল না, আবার কাটার জন্য লোকও পাচ্ছি না। একজন বললো ছাত্রলীগ ধান কেটে দিচ্ছে। আমি আমার আকুতির কথা এক ছাত্রলীগ কর্মীকে বললে সকালে এসে তারা আমার ধান কেটে মাড়াই করে দিয়েছে।’

মোঃ তাজবিউল হাসান অপূর্ব বলেন, ‘আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার আহবানে এবং কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি আল-নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যের নির্দেশে ছাত্রলীগ যশোর জেলা শাখার কর্মসূচির অংশ হিসেবে যশোর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সালাউদ্দিন কবীর পিয়াস ও সাধারণ সম্পাদক তানজীব নওশাদ পল্লব  এর নির্দেশনায় ও সার্বিক সহযোগিতায় করোনা মহামারিতে শ্রমিক সংকটে ধান কাটতে না পারা কৃষকের পাশে দাঁড়িয়েছি। স্থানীয় এক কর্মীর মাধ্যমে খবর পেয়ে আমরা আজকে এক কৃষকের ধান কেটে দিলাম।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমরা করোনা মহামারীর শুরু থেকেই লিফলেট বিতরণ, হ্যান্ড-স্যানিটাইজার তৈরি করে বিতরণ, ধান কাটা এবং খাদ্যসামগ্রী বিতরণ কর্মসূচি পালন করেছি। এবছরেও আমরা ধান কাটার পাশাপাশি খাদ্যসামগ্রী সহায়তা কর্মসূচি অব্যাহত রেখেছি।’

এ কর্মসূচিতে তাজবিউল হাসান অপূর্বর নেতৃত্বে অংশগ্রহণ করেন এহসানুল হক এলান, মীর ওয়াহিদ রেহমান, তানজিউল হাসান অর্পণ, হ্দয় পারভেজ শুভ, নাহিদ আরজু নিশাত, শাহরিয়ার খান জেহান,আশিকুল ইসলাম তানভির রহমান জিতু, ইফতেখার রহমান রসুল, রাসেল হেসেন, ইয়াসিন রহমান।