ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় বলেছেন, অসাম্প্রদায়িক চেতনায় বাংলাদেশ ছাত্রলীগ এগিয়ে যাচ্ছে। যা অন্য কোনো সংগঠন পারেনি। বরং তারা বাংলাদেশ বিরোধী ষড়যন্ত্র করেছে।

শনিবার (৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে শনিবার কৃষিবিদ ইন্সটিটিউশন বাংলাদেশ (কেআইবি)-তে সম্মিলিত বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সম্মেলনে উদ্বোধকের বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

জয় বলেন, ‘অনেক সময় মাত্র ২০ জনকে নিয়ে নাম সর্বস্ব সংগঠনকে দেখেছি মাঠে নামে। তারা মাইক নিয়ে রাস্তায় রাস্তায় শব্দদূষণ করে। ছাত্রলীগকে নিয়ে আপনারা হয়তো কথা বলেন ভাইরাল হওয়ার জন্য। কিন্তু ছাত্রলীগকে নিয়ে কথা বলার কোনো যোগ্যতাই আপনাদের নেই।’

‘আমরা দেখিনাই সেই সংগঠনকে কোনো শিক্ষার্থীর কথা বলতে। সেই সংগঠনের শীর্ষ নেতাদের অশ্লীল ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। আমি মনে করি, এ ধরনের শীর্ষ নেতাকে এতদিনে পদত্যাগ করা উচিত ছিল। এই সংগঠনে আমাদের বোনেরা যারা আছে, তাদের জন্য আমার কষ্ট হয়। এই ধরনের শীর্ষ নেতার পাশে তারা কীভাবে রাজনীতি করে।’- যোগ করেন জয়।

ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, ‘প্রথম থেকে এখন পর্যন্ত আপনারা যারা কষ্ট করেছেন, অন্য কোনো সংগঠন মাঠে নেমে করেনি। করোনা মোকাবিলা করে আপনারা নিজ নিজ জায়গা থেকে মানুষের জন্য, মানুষের পাশে থেকে, শিক্ষার্থীদের পাশে থেকে আপনারা কাজ করেছেন। ওই সময়ে অন্য সংগঠন বাসায় বসে ষড়যন্ত্র করেছে। রাস্তায় রাস্তায় লাশ পড়ে গিয়েছিল। সেখানে আমরা মাঠে থেকে মানুষকে সচেতন করেছি।’

আল নাহিয়ান খান জয় বলেন, ‘আমরা দেখেছি কয়েকটি বাচ্চা শিশু যাদের বাবারা জানে- ছাত্রলীগ এদেশের স্বাধীনতার অর্জনে ভূমিকা রেখেছে। ইতিহাসের পরতে পরতে এ সংগঠনটির অর্জন। কিন্তু তার সন্তানেরা ফেসবুকের মাধ্যমে জানতে পেরেছে তারা নাকি ছাত্রলীগকে গোণে না! তাদের উদ্দেশ্যে বলতে চাই- ছাত্রলীগের একটা ধাওয়াই যথেষ্ট। আমরা কখনোই অন্যায়কে প্রশ্রয় দেই না।’

এ অনুষ্ঠানে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য বলেন, বঙ্গবন্ধু পরবর্তী বাংলাদেশে দেশরত্ন শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করে নিজেদেরকে চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের জন্য উপযোগী করে তুলে শিক্ষা-দীক্ষায়, মানে এবং ডিজিটাল জ্ঞানে নিজেদেরকে সমৃদ্ধ করে বাংলাদেশের অগ্রগতি-অগ্রযাত্রাকে আরও অগ্রগামী করবে ছাত্রলীগ। যারা দীর্ঘদিন ধরে ছাত্রলীগের সঙ্গে আছে, তৃণমূলের এবং বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে পৌছে দিতে পারবেন তাদেরকে গুরত্ব দেয়া হবে বলেও যোগ করেন তিনি।