একদিকে করোনা আরেক দিকে লকডাউন সবকিছু মিলিয়ে সপ্নের ফসল যখন ঘরে তুলতে না পেরে মহা বিপর্যয়ে ছিল গাজীপুর শ্রীপুর উপজেলার বরমী ইউনিয়নের মোঃ মফিজ উদ্দিনের ছেলে বর্গাচাষী কৃষক মোঃ আনিছ মিয়া।

তবে সে সপ্নের ফসল ঘরে তুলতে এগিয়ে এসেছে কৃষকের পাশে শ্রীপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি পদপ্রার্থী মোঃ মাহবুবুর রহমান।

এই বিষয়ে কৃষক আনিছ মিয়া জানান, আমি করোনা ও লকডাউন এর কারণে কোন কাজকর্ম করতে পারিনা এজন্য আমার কাছে কোনো টাকা ছিল না। তবে অল্প কিছু জমি বর্গা নিয়ে কৃষি কাজ করি সেইটুকু জমির ধান গড়ে তোলা সম্ভব হচ্ছিল না টাকার অভাবে ধানগুলো এমনিতেই নষ্ট হয়ে জমিতে পড়ে যাচ্ছিল ঠিক সেই মুহুর্তে ছাত্রলীগ নেতা মোঃ মাহবুবুর কে আমি বাজারে পেয়ে তার কাছে সকল কিছু খুলে বলি সে আমাকে সেই মূহূর্তে আশ্বস্ত দেন যে আপনি ভেঙ্গে পড়বেন না আপনার স্বপ্নের ফসল আপনার ঘরে পৌঁছে দেওয়ার দায়িত্ব আমাদের সেই কথা মোতাবেক মাহবুবুর তার ছাত্রলীগ কর্মীদের কে নিয়ে আমার তিন বিঘা জমির ধান কেটে ধান মাড়াই করে আমার ঘরে তুলে দেন। আমি এতে অনেক আনন্দিত।

এ বিষয়ে মাহবুবুর রহমান বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা এবং বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক ও গাজীপুর ৩ আসনের সংসদ সদস্য মুহাম্মদ ইকবাল হোসেন সবুজ এমপির নির্দেশ করেছেন এই করোনা ও লকডাউনে যে কৃষক তার ফলানো ফসল ঘরে তুলতে না পারবে। ছাত্রলীগের দায়িত্বে নিজের অর্থ খরচ করে এবং যেকোন মূল্যে তার ফসল যেন তাদের ঘরে পৌঁছে দেয় ছাত্রলীগ।
এসময় মাহবুবুর রহমান আরও বলেন, দেশের এই মহামারী ক্লান্তিকালে কৃষকের পাশে দাঁড়াতে পেরে নিজেদের মাঝে অনেক আনন্দিত হচ্ছে এবং এই কৃষকের পাশে দাঁড়ানোর আগেও অনেক কৃষকের সাথে থেকে তাদের স্বপ্নের ফসল ঘরে তুলতে সাহায্য করেছেন এবং সর্ব সময় সাধারণ মানুষ ও কৃষকদের পাশে থাকতে চান তিনি।